১৬ জুন ২০২৪

কিশোর পাঠকদের জন্য মহানবীর (সা.) জীবনী লিখতে চান আসিফ নজরুল

কিশোর ডাইজেস্ট ডেস্ক
২১ জানুয়ারি ২০২৪, ১৮:২৬
সৌদি আরবের মিনার তাঁবু থেকে ফেরার পথে ড. আসিফ নজরুল। ছবি : ফেসবুক থেকে

সমসাময়িক রাজনীতি, আর্থ-সামাজিক অবস্থা, সংবিধানসহ নানা বিষয়ে নিজের মত প্রকাশ করে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল। একাধারে তিনি কথাসাহিত্যিক, রাজনীতি-বিশ্লেষক, সংবিধান বিশেষজ্ঞ ও কলাম লেখক। প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় তাঁর জোরদার উপস্থিতি রয়েছে। পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও সমান সক্রিয়।

রবিবার (২১ জানুয়ারি) নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে ড. আসিফ নজরুল নিজের একটি উপলব্ধি প্রকাশ করেছেন। মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর জীবনী পড়ে তাঁর এই উপলব্ধি হয়েছে। লিখেছেন, মহানবীর (সা.) জীবনী তাঁকে অনুপ্রাণিত করেছে। ভবিষ্যতে তিনি কিশোর পাঠকদের উপযোগী করে মহানবীর (সা.) জীবনী রচনারও ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন।

ফেসবুকে ড. আসিফ নজরুল লিখেছেন, ‘আমার জীবনের একটা বড় সময় কেটেছে ধর্মীয় বই না পড়ে। এখন যখন পড়ি, বিশেষ করে আমাদের প্রিয় মহানবীর (সা.) জীবনী, মনে হয় কি বিরাট ভুল করেছি। উনি কি শুধু মহানবী ছিলেন? প্রায় ৭-৮টা উনার জীবনীগ্রন্থ পড়েছি। এর মধ্যে আছে ক্যারেন আর্মস্ট্র, মার্টিন লিংস, আদিল সালাহির মতো স্বনামধন্য লেখকদের বই। উনার সম্পর্কে আগের চেয়ে অনেক বেশ জানি এখন।’

আসিফ নজরুলের ফেসবুক স্ট্যাটাস। ছবি : স্ক্রিনশট 

ড. আসিফ নজরুল আরও লেখেন, ‘আমাদের মহানবী (সা.) শুধু শ্রেষ্ঠ নবী ছিলেন না। তিনি ছিলেন একজন অসাধারণ সময়নায়ক, রাষ্ট্রনায়ক এবং দলনেতা। তিনি যে রাষ্ট্রের জন্ম দিয়েছিলেন, তার মতো শান্তিময়, কল্যাণকর ও মানবিক রাষ্ট্র পৃথিবীর ইতিহাসে খুঁজে পাওয়া যাবে না। উনার বিনয়, সততা, পরোপকার, দয়া ও ক্ষমাশীলতা ছিল তুলনাহীন। আমাদের এক শ্রেণির শিক্ষিত মানুষ উনার গুণগান শুনতে অস্বস্তি বোধ করেন। আরেক শ্রেণি না জেনে মন্তব্য করেন।’

ড. আসিফ নজরুল যুক্ত করেন, ‘আল্লাহর কাছে শোকর করি, আমি দেরিতে হলেও মহানবীর (সা.) ওপর পড়াশোনা করছি। যদি আমার ভাগ্যে থাকে, কিশোর পাঠকদের উপযোগী করে উনার জীবনী রচনারও ইচ্ছে রাখি। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন।’